Header Ads

আমতলায় তীব্র পানীয় জলের সঙ্কটঃ প্রতিকার চেয়ে বিডিও কে ডেপুটেশন দিল নওদা নাগরিক কমিটি

 নওদাঃ আমতলায় তীব্র পাণীয় জলের সঙ্কট চলছে বেশ কয়েকদিন ধরে। এই সঙ্কটের সমাধান চেয়ে  নওদা নাগরিক কমিটি নওদা সভাপতি ও বিডিওর নিকট ডেপুটেশন দিল। 

  সরকারিভাবে পাণীয় জলের একমাত্র উৎস আমতলা জলট্যাঙ্কের (PHE)  জল । কিন্তু বিগত কয়েক দশকের এই ভরসার জায়গায় কোপ পড়েছে P. H. E. কর্তৃপক্ষের তুঘলকি সিদ্ধান্তে। পানীয় জলের কোনোরকম বিকল্প ব্যবস্থা না নিয়ে P. H. E. কর্তৃপক্ষ হঠাৎ করেই জল ট্যাঙ্ক সংস্কারের উদ্দেশ্যে ভাঙতে শুরু করেছেন। যার ফলে এলাকার কয়েক হাজার মানুষ তীব্র পানীয় জলের সঙ্কটে পড়েছেন।

নওদা নাগরিক কমিটির নেতৃবৃন্দ 

এলাকার বাসিন্দাদের এই সঙ্কটের সুযোগে কিছু অসাধু জলের ব্যবসায়ী দশ টাকার জার ভুর্তি জল ২০টাকায় জনসাধারণকে কিনতে বাধ্য করাচ্ছে। PHE জন না পেয়ে বাসিন্দাদের চড়া দামে জল কিনতে হচ্ছে। এমতাবস্থায় নওদা নাগরিক কমিটি কিছু দিন আগে এই পানীয় জলের সমস্যা নিরসনের দাবিতে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য রাস্তায় নেমেছে।.২৯ সে সেপ্টেম্বর একযোগে নওদা বিডিও ও নওদা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতির নিকট 'নওদা নাগরিক কমিটি' এই চরম সমস্যা নিরসনের দাবিতে ডেপুটেশন দেয়। আলোচনায় ভারপ্রাপ্ত জয়েন্ট বিডিও জানিয়েছেন যে, তিনি এই বিষয়ে তাঁর উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করবেন। আলোচনায় নওদা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বিশ্বজিৎ ঘোষ মহাশয় এই সমস্যা নিরসনে আন্তরিক সদিচ্ছা প্রকাশ করেছেন। তিনি আশ্বস্ত করেছেন, যত দ্রুত সম্ভব এই সমস্যার বিকল্প সমাধান তিনি করবেন।

পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বিশ্বজিত ঘোষের নিকট নেতৃবৃন্দ 

 নওদা নাগরিক কমিটি র পক্ষে এই ডেপুটেশন এ উপস্থিত ছিলেন গাজিরুল বিশ্বাস(সভাপতি),আব্দুস সালাম ও প্রভাত মন্ডল(যুগ্ম সম্পাদক), মনিরুল ইসলাম মন্ডল (সহ-সভাপতি) এবং মাসুম আহমেদ মন্ডল(সদস্য)।

No comments

Powered by Blogger.