এন আর সি বাতিল না হওয়া পর্যন্ত ধর্না চলবে। পাটিকাবাড়ী ধর্না মঞ্চের ৩৮তম দিনে বললেন অঞ্জন মুখার্জি

পাটিকাবাড়ীঃ এন আর সি, এন পি আর, সি এ এ বাতিলের দাবিতে সারা ভারতের সাথে পাটিকাবাড়ীতেও ধর্নামঞ্চ ৩৮ টা দিন পার করল। মঞ্চে প্রায় প্রতিদিনের জন্য এন আর সি বিরোধী আন্দোলনের বিভিন্ন এলাকার নেতা-কর্মীরা এসে তাদের বক্তব্য রাখছেন। ৩৮তম দিনে উপস্থিত ছিলেন সারা বাংলা এন আর সি বিরোধী নাগরিক কমিটির  রাজ্য  কমিটির সদস্য আঞ্জন মুখার্জি।
Anjan Mukkharjee
বক্তব্য রাখছেন অঞ্জন মুখার্জি 
       তিনি বলেন দিল্লীতে দাঙ্গা হয়নি, হয়েছে গণহত্যা। ২০০২ সালে গুজরাত গণহত্যার কায়দায় দিল্লী পুলিশকে নিষ্ক্রিয় রেখে উত্তর প্রদেশ থেকে ৪৫০ জনের ভাড়াটে খুনিদেরকে দিয়ে দিল্লীতে এই গণহত্যা করিয়েছে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। বিজেপি সরকারের উদ্দেশ্য ছিল এইভাবে দাঙ্গা বাধিয়ে দিয়ে দিল্লীর শাহিনবাগের ধর্না মঞ্চকে ভাঙা। কিন্তু দিল্লীর সাধারণ মানুষ বিজেপির সেই কৌশলকে ব্যর্থ করে দিয়েছে। দিল্লীর স্থানীয় হিন্দু ও শিখ সম্প্রদায়ের মানুষ মুসলিম প্রতিবেশীর প্রাণ বাঁচিয়েছে। তেমনি মুসলিম অধ্যুষিত এলাকার মন্দির রক্ষা করেছে স্থানীয় মুসলিমরাই।
পাটিকাবাড়ী ধর্নামঞ্চ 
         তিনি আরও বলেন এন আর সি বিরোধী আন্দোলন মুসলিমদের একার আন্দোলন নয়, ভারতের সমস্ত সম্প্রদায়ের খেটে খাওয়া মানুষের আন্দোলন। নদীয়ার কৃষ্ণনগরে হিন্দু অধ্যুষিত এলাকায় ধর্নামঞ্চ চলছে হিন্দু-মুসলিম কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে। আসামের এন আর সিতে ১২ লক্ষের অধিক হিন্দু সম্প্রদায়ের নাম বাদ পড়ায় প্রমাণ করে দিয়েছে বিজেপির আমলেই হিন্দুরা সবচেয়ে বেশি বিপদে আছে। সারা বাংলা এন আর সি বিরোধী নাগরিক কমিটি আহ্বান করছে হিন্দু-মুসলিম ভাগাভাগি নয় কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দাবী তুলুন এন আর সি নয় সমস্ত বেকারের কাজ দাও, চাষির ফসলের ন্যায্য দাম দাও, নারীর সুরক্ষা দাও । যতক্ষণ পর্যন্ত সি এ এ, এন পি আর, এন আর সি বাতিল হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত এই ধর্নামঞ্চ চলবে। 

No comments

Powered by Blogger.